সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

ভিন্নধর্মী পিঠা - ডিম চিতই

শীত চলে এসেছে, আর শীতের পিঠা-পুলি খাওয়া হবেনা তাই কি হয়? তাই আজ আপনাদের জন্যে নিয়ে এলাম একটি ভিন্নধর্মী পিঠার রেসিপি। যা প্রয়োজন:ব্যাটার এর জন্য: চালের গুঁড়া...

খুব সহজেই বানান মজাদার সাগুদানা পিঠা

পিঠা খেতে আমরা সবাই ভালোবাসি। আর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বাংলার ঐতিহ্য বজায় রাখে পিঠা। ঝামেলা এড়ানোর জন্য অনেক সময় বাদ পড়ে যায় পিঠা। তাই আজকে এমন একটি পিঠা নিয়ে এস...

ঘরেই তৈরী করুন ভাপা পিঠা কেক

আজকাল সবাইকেই খুব ব্যস্ত সময় কাটাতে হয়। তাই সব কিছুর পেছনে ব্যয় করার মতো সময় কমে এসেছে। কোন কাজ কত কম সময়ে করা যায় সেই উপায় অনেকেই খুঁজে থাকেন।...

নারিকেলের চিতই পিঠা

শীতকাল মানে পিঠার মহোত্সব। এই সময়ে প্রতিটি বাসাতেই চলে নানা স্বাদের পিঠার আয়োজন। আপনি চাইলে ঘরেই বানাতে পারেন নানা রকম পিঠা।। আর ভিন্ন স্বাদের পিঠার রেসিপি...

ভিন্ন স্বাদের চিকেন ক্রিম পাটিসাপটা

বাঙালির পিঠা পায়েসে রয়েছে দারুণ খ্যাতি। ছোট বড় সব উৎসবে থাকা চাই মজার স্বাদের পিঠা পুলি। সুস্বাদু পুরে ভরা পাটিসাপটা তার মধ্যে অন্যতম। নিজেদের খাওয়া আর ...

সহজ ও মজাদার পুলি পিঠার রেসিপি

গুটি গুটি পায়ে শীতকাল চলে আসছে। আর এই শীতকাল মানেই পিঠা খাওয়ার ধুম পড়ে যায়। অনেকেই আছেন যারা পিঠা খেতে পছন্দ করেন কিন্তু বানাতে পারেন না। তাই তাদের কথা ভেব...

স্পেশাল পান পাকপান পিঠা

গ্রাম বাংলার অতিপরিচিত পিঠা হল এই পান পাকপান পিঠা। অল্প খরচে বানিয়ে ফেলতে পারেন মজাদার এই পিঠা।উপকরন:ময়দা: ১ কাপ (আটাও ব্যাবহার করা যায়)ডিম: ৩টিদুধ: ১ ক...

লবঙ্গ লতিকা পিঠা

উপকরনঃ ময়দা, চালের গুড়া, লবণ, দুধ, নারকেল, চিনি বা গুড়, লবঙ্গ ও তেল। প্রনালীঃ প্রথমে ময়দা, চালের গুড়া ও লবণ একসাথে নিয়ে পানি দিয়ে মাখিয়ে ময়ান করে নিন। তারপর দুধ জ্বাল দিয়ে নারকেল কোড়া চিনি বা গুড় দিয়ে জ্বালিয়ে পুর বানিয়ে নিন। এরপর রুটির মত গড়ে গোল করে কেটে ওর মধ্যে নারকেলের পুর দিয়ে চারদিক দিয়ে ভাঁজ করে মাঝখানে লবঙ্গ গেঁথে মুখ আটকে দিন। এবার গরম তেলে একটি একটি করে ডুবো তেলে ভেঁজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

মুরগী পিঠা

উপকরনঃ চালের গুড়া, লবণ, মুরগীর কিমা, আদা বাটা, রসুন বাটা, জিরার গুড়া, ধনে গুড়া, মরিচের গুড়া, পেঁয়াজ কুচি, ধনে পাতা কুচি, কাঁচা মরিচ কুচি এবং ভাজার জন্য সয়াবিনের তেল। প্রনালীঃ প্রথমে পাত্রে পরিমান মত তেল দিয়ে পেঁয়াজ কুচি ভেঁজে নিন। তারপর উপকরনের ধনেপাতা ও কাঁচামরিচ কুচি বাদে সব মসলা দিয়ে মুরগীর কিমা কষিয়ে পুর তৈরি করুন। চুলা থেকে নামানোর আগে ধনে পাতা ও কাঁচামরিচ কুচি দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। এরপর অন্য পাত্রে গরম পানিতে লবণ দিয়ে চালের গুড়া দিয়ে সেদ্ধ করে মেখে ময়ান তৈরি করে নিন। এবার ময়ান থেকে নিয়ে নরমাল রুটির মত বেলে ডিজাইন অনুযায়ী কেটে ...

পাকা কলার পিঠা

উপকরনঃ ময়দা – পরিমান মত, ডিম – পরিমান মত, দুধ – পরিমান মত, পাকা কলা – পরিমান মত, চিনি ও ঘি – পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে পরিমান মত পাকা কলা নিয়ে লম্বা লম্বা করে কেটে রাখুন। যেমন ১ টি কলা চার ভাগ হবে। এবার অন্য একটি পাত্রে দুধের সাথে ময়দা ও ডিম দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। তারপর কড়াইয়ে ঘি দিয়ে একটি একটি করে কলার পিচ নিয়ে ময়দার গোলায় চুবিয়ে ভেজে নিন। এরপর চিনির রসে ডুবিয়ে তুলে মজাদার এই পিঠা টি পরিবারে সবার জন্য পরিবেশন করুন।

ক্ষীর ও ডিমের পিঠা

উপকরনঃ দুধ, চিনি, ক্ষোয়াক্ষীর, ডিমের সাদা অংশ, ময়দা, এলাচ গুড়া, ঘি সব কিছুই দিতে হবে পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে একটি পাত্রে সামান্য দুধ নিয়ে চিনি, ক্ষোয়াক্ষীর, ডিমের সাদা অংশ, ময়দা, এলাচ গুড়া ও সামান্য পানি দিয়ে ভাল করে গুলিয়ে নিন। এবার তাওয়ায় ঘি মাখিয়ে বেশ গরম করে গুলানো ময়দা হাত দিয়ে তাওয়ায় ছড়িয়ে দিন। এপিঠ ওপিঠ ভাল করে ভেজে তাওয়া থেকে উঠিয়ে অন্য পাত্রে রেখে চিনি ছড়িয়ে পরিবেশন করুন।

মুগের পুলি

উপকরনঃ ভাজা মুগ ডাল – ১ পোয়া, নারিকেল কুরানো – ২ কাপ, ময়দা – ১ কাপ, চিনি – ৩ পোয়া লবণ ও সয়াবিনের তেল পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে মুগের ডাল গরম পানিতে সিদ্ধ করে পাটায় বেটে নিন। এবার দেড় পোয়া চিনিতে ৩/৪ কাপ পানি দিয়ে সিরা করে নিন। তারপর নারিকেল ও বাকি চিনি মিশিয়ে চুলায় জ্বাল দিতে থাকুন। ঘন ও আঁঠালো হয়ে আসলে চুলা থেকে পাত্রটি নামিয়ে ফেলুন। এরপর ময়দা ও ২ টেবিল চামচ তেল দিয়ে ময়ান বানিয়ে নিন। ময়দার সাথে ১/৪ ভাগ পানি ও সিদ্ধ ডাল দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিন। ২০-২৫ ভাগ করে প্রত্যেক ভাগে নারিকেলের পুর দিয়ে মুখ বন্ধ করে দিন। এবার ডুবো তেলে ভে...

চন্দ্র পুলি

উপকরনঃ নারকেল – ৩ টি, চিনি – ৩ পোয়া, গুড় – আধা কেজি, ময়দা – ১ কেজি, দুধ – ২ কেজি, তেল – পরিমান মত। প্রনালীঃ প্রথমে নারিকেল মিহি করে কুরে নিন। কুরানো অর্ধেক নারিকেল আবার শিল পাটায় আর ও মিহি করে বেটে নিন। বাকি অর্ধেক নারিকেলের সঙ্গে গুড় জ্বাল দিয়ে হালুয়ার মত করে পুর বানিয়ে নিন। হালুয়া শুকিয়ে চটচটে হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। এবার একটি পাত্রে ঘন করে দুধ জ্বাল দিয়ে নিন। তারপর পাটায় মিহি করা নারিকেল ও চিনি মিশিয়ে ময়দা দিয়ে কাই করে নিন। এরপর রুটি বেলে নারিকেলের পুর ভরে বাঁশের চটা বা ছুড়ি দিয়ে অর্ধচন্দ্রাকারে কেটে নিন। চন্দ্রপুলি ড...

ম্যারা পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, লবণ ও পানি। প্রনালীঃ প্রথমে চাউলের গুড়া সামান্য ভেজে নিন। এবার ভাজা চাউলের গুড়ার মধ্যে গরম পানি ও লবণ দিয়ে আটা সিদ্ধর মত হাতে কাই করে নিন। তারপর হাতের তালুতে গোল গোল বা লম্বা করে বিভিন্ন আকৃতি করে ভাপে সিদ্ধ দিন। এভাবে তৈরি হয়ে গেল মজাদার ও সুস্বাদু ম্যারা পিঠা। এই পিঠা শুটকি ভর্তা, গুড়, বা মাংস দিয়ে পরিবেশন করুন।

পাটি সাপটা পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, আটা বা ময়দা, সুজি, চিনি, দুধ, ও সামান্য তেল। প্রনালীঃ প্রথমে চিনি ও দুধ ঘন করে গরম করে নিন। ২-৩ টুকরা গরম মসলা ও পরিমান মত সুজি দিয়ে ক্ষীর তৈরি করুন। চাউলে গুড়া আর আটা বা ময়দা ও চিনি দিয়ে ঘন করে পেস্ট করুন। তারপর ফ্রাই প্যান সামান্য তেল দিয়ে মুছে নিন। ঘন গুলানো আটা চামচে করে প্যানে দিয়ে রুটির মত করে ২ মিনিট ঢেকে রেখে তা এক সাইডে ক্ষীর দিয়ে ভাজ করে আঁচ দিন। ভাজা হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ছিটা পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, আদা বাটা, পেয়াজ বাটা, ডিম ও সামান্য তেল। প্রনালীঃ চাউলের গুড়ার মধ্যে আদা বাটা, পেয়াজ বাটা দিয়ে হালকা ঘন করে মাখিয়ে নিন। এবার ফ্রাই প্যান হালকা তেল দিয়ে মুছে দিন। তারপর আটার মধ্যে হাত দিয়ে কয়েক বার গুলানো চাউলের গুড়া ফ্রাই প্যানে ছিটিয়ে দিয়ে রুটির মত করে আঁচ দিন। রুটি গুলো ৩ কোনা ভাজ করে নামিয়ে ফেলুন। তারপর মুরগীর মাংস দিয়ে পরিবেশন করুন।

ডিমের পিঠা

উপকরনঃ ময়দা, ডিম, চিনি, সয়াবিনের তেল। প্রনালীঃ প্রথমে পানি ছাড়া ময়দা, ডিম, চিনি ও তেল দিয়ে হালকা শক্তভাবে হাত দিয়ে মাখিয়ে পেস্ট করুন। এবার কাই করা ময়দা দিয়ে পাতলা করে রুটি বানিয়ে রাখুন। রুটি বানানোর পর হাত দিয়ে বিভিন্ন ফুলের নকশা করে তেলে ভেজে নিন বা শিরা বানিয়ে শিরার মধ্যে দিয়ে পরিবেশন করুন।

ফুল পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, গুড় ও তেল। প্রনালীঃ প্রথমে ঘন করে গুড়ের শিরা বানিয়ে নিন। এবার অন্য পাত্রে গরম পানি দিয়ে চাউলের গুড়া সিদ্ধ করে হাত দিয়ে কাই করে নিন। ছোট ছোট ও মোটা করে লুচি বানান। এরপর খেজুর কাটা দিয়ে বিভিন্ন নকশা করে নিন। কড়াইয়ে পরিমান মত গরম তেলে ভালো করে ভেজে নিন। ভাজা পিঠা রোদে শুকিয়ে আবার তেলে ভেজে গুড়ের শিরায় চুবিয়ে উঠিয়ে পরিবেশন করুন। এই পিঠা রোদে শুকিয়ে অনেক দিন সংরক্ষন করে রাখা যায়।

পাকান পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, ডিম, মসুরের ডাল, চিনি ও তেল। প্রনালীঃ প্রথমে মসুরের ডাল ধুয়ে সিদ্ধ করে নিন। একটি পাত্রে পরিমান মত চিনি দিয়ে শিরা করে নিন। গরম পানিতে চাউলের আটা দিয়ে সিদ্ধ করুন এবং হাত দিয়ে কাই করে নিন। কাই করা আটার মধ্যে সিদ্ধ ডাল ও কাঁচা ডিম ফাটিয়ে একসাথে পেস্ট করে নিন। তারপর ঐ আটা দিয়ে মোটা করে রুটি বানিয়ে নিন। এবার খেজুর কাটা দিয়ে রুটির উপরে বিভিন্ন নকশা করুন। কড়াইয়ে পরিমান মত তেলে বাদামী রঙ করে ভেজে শিরার মধ্যে চুবিয়ে উঠিয়ে নিন।

ভাপা পিঠা

উপকরনঃ চাউলের গুড়া, নারিকেল কুড়ানো, খেজুরের গুড়। প্রনালীঃ চাউলের গুড়ার মধ্যে সামান্য লবণ ও হালকা পানি দিয়ে আধা মাখা ঝর ঝরা করা মাখিয়ে নিন। তারপর বাঁশের চালনি দিয়ে চেলে নিন। চালা চাউলের গুড়া ছোট বাটিতে অর্ধেক করে নিয়ে তার উপর নারিকেল কুড়া, কুড়ানো গুড় ও আবার হালকা চাউলের গুড়া দিয়ে দিন। বাটিটা হালকা পাতলা কাপড় দিয়ে ঢেকে গরম পানির পাতিলের ওপর ভাপে দিন। ৭-৮ মিনিট শক্ত হয়ে গেলে ভাপা পিঠা নামিয়ে উপরের কাপড়টা ছাড়িয়ে নিন। শীতের দিনে সকালে গরম গরম মজাদার ভাপা পিঠা পরিবেশন করুন।

বকুল পিঠা

সব ঋতুতেই এই পিঠা খাওয়া যায়। দুধের রসে টইটম্বুর খেতে ভারী মজা এই বকুল পিঠা। উপকরণ: কোড়ানো নারিকেল, গরুর দুধ, চিনি, তেজপাতা, দারুচিনি, এলাচ, কিচমিচ, লং ফড়িং ও ময়দা। প্রণালী: প্রথমে একটা পাত্রে পরিমান মত গরুর দুধ নিন। দুধের মধ্যে দারুচিনি, তেজপাতা, এলাচ, কিচমিচ ও পরিমান মত চিনি দিয়ে সামান্য ঘন করে আঁচ দিন। দুধ ঘন হয়ে আসলে চুলার আঁচ কমিয়ে মৃদু মৃদু তাপে দুধের পাত্রটি চুলার ওপর রেখে দিন বা চুলা থেকে নামিয়েও রাখতে পারেন। অন্য পাত্রে সামান্য তেল দিয়ে তেলের ওপর দুইটা তেজপাতা, দারুচিনি এলাচ ও লং ফড়িং ছেড়ে দিন। তারপর কোড়ানো নারিকেল ও প...

ঝিনুক পিঠা

পিঠা সবার কাছে মুখরোচক ও লোভনীয় একটা খাবার। খুব অল্প সময়ে অল্প খরচে এই পিঠা টি বানানো হয়। এই পিঠা বানানোর পরে ঝিনুকের মত দেখতে হয় বলে একে ঝিনুক পিঠা নামে ডাকা হয়। বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ বিভিন্ন ভাবে এই পিঠা বানিয়ে থাকে। অনেকে বানায় প্লাস্টিক এর ঝিনুকের কাভার কিনে আবার অনেকে বানায় প্রকৃতির তালের হাত পাখা দিয়ে। তবে তাল পাখা দিয়ে বানানো পিঠা অনেক টেস্টি ও খেতে সুস্বাদু হয়ে থাকে। যদি কখনো ঝিনুক পিঠা না খেয়ে থাকেন তবে এখুনি হাতে তুলে নিন ঝিনুক পিঠা বানানোর সব উপকরন। উপকরনঃ আটা বা ময়দা পরিমান মত, চিনি, নারিকেল কুড়া, সয়াবিনের তেল, ...

বকুল পিঠা

সব ঋতুতেই এই পিঠা খাওয়া যায়। দুধের রসে টইটম্বুর খেতে ভারী মজা এই বকুল পিঠা। উপকরণ: কোড়ানো নারিকেল, গরুর দুধ, চিনি, তেজপাতা, দারুচিনি, এলাচ, কিচমিচ, লং ফড়িং ও ময়দা। প্রণালী: প্রথমে একটা পাত্রে পরিমান মত গরুর দুধ নিন। দুধের মধ্যে দারুচিনি, তেজপাতা, এলাচ, কিচমিচ ও পরিমান মত চিনি দিয়ে সামান্য ঘন করে আঁচ দিন। দুধ ঘন হয়ে আসলে চুলার আঁচ কমিয়ে মৃদু মৃদু তাপে দুধের পাত্রটি চুলার ওপর রেখে দিন বা চুলা থেকে নামিয়েও রাখতে পারেন। অন্য পাত্রে সামান্য তেল দিয়ে তেলের ওপর দুইটা তেজপাতা, দারুচিনি এলাচ ও লং ফড়িং ছেড়ে দিন। তারপর কোড়ানো নারিকেল ও প...